সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:২৬ অপরাহ্ন

মানবজমিন সম্পাদকসহ ৩২ জনের বিরুদ্ধে সাংসদের মানহানীর মামলা

ডেস্ক রিপোর্ট:

মানবজমিনের সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরীসহ ৩২ জনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা করা হয়েছে। নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত সাধারণ সম্পাদক শামীমা নূর পাপিয়ার সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা নিয়ে মানহানিকর সংবাদ প্রকাশের অভিযোগে সোমবার রাতে রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানায় মামলাটি করা হয়।

মাগুরা-১ আসনের সংসদ সদস্য সাইফুজ্জামান শেখর বাদী হয়ে করা মামলার এজাহার মঙ্গলবার ঢাকা সিএমএম আদালতে আসে। পরে মহানগর হাকিম মো. সারাফুজ্জামান আসছারী আগামী ২০ এপ্রিল তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য করেন।

শেরেবাংলা নগর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সুজানুর ইসলাম মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘গ্রেপ্তার পাপিয়ার সঙ্গে জড়িয়ে সংবাদ প্রকাশের অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলাটি করেছেন সংসদ সদস্য সাইফুজ্জামান শেখর। মামলায় মানবজমিন পত্রিকার সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী ও রিপোর্টার আল-আমিনসহ ৩২ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।’

 

এসআই জানান, ‘মামলায় মানবজমিনের সম্পাদক ও রিপোর্টার ছাড়া অন্য ৩০ আসামি ফেসবুকে ওই নিউজটি লাইক এবং শেয়ার করেছিলেন।’

 

ফেসবুক আইডি অনুযায়ী মামলার অপর আসামিরা হলেন, শফিকুল ইসলাম কাজল, প্রিন্স ফাইম, আরিফুল ইসলাম আরিফ, ফরহাদ খান, জুয়েল আহমেদ, মোহাম্মাদ মোসলেম, মো. মিজানুর রহমান, মোর্শেদ আলম, কাজন আবু হানিফ, মো. রুবেল, আয়শা আমান, মো. শামিম আক্তার, মো. সাত্তার মৃধা, মো. তৌফিক, মিলি হাসান, হাবিব আদনান, ঋষি কান্ত, মো. সোহেল হোসেন, ছালে আহমেদ, জসিম উদ্দিন জসিম, মো. খাইরুল ইসলাম, হেদায়েতুল ইসলাম, মো. মাফুজ আহমেদ, এমএ মামুন, মো. হেলাল, সেলিম চৌধুরী, ইস্পাত মোহাম্মামদ, বেলায়েত হোসেন, মারুফ রাজু ও মকটেল হোসেন মুক্তি।

 

মামলার অভিযোগে বলা হয়, গত ২ মার্চ মানবজমিন পত্রিকায় মতিউর রহমানের নির্দেশে রির্পোটার আল-আমিন ‘পাপিয়ার মুখে আমলা, এমপি, ব্যবসায়ীসহ ৩০ জনের নাম’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ করেন। সেখানে সংসদ সদস্যদের মধ্যে ঠাকুরগাঁও, দিনাজপুর, নীলফামারি, রংপুর, কুষ্টিয়া ও মাগুরার জেলার একজন করে সংসদ সদস্যের পাপিয়ার সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা রয়েছে বলে উল্লেখ্য করা হয়। এছাড়া অপর আসামিরা তাদের ফেসবুক আইডিতে পাপিয়ার খদ্দের ও সংশ্লিষ্টতায় মন্ত্রী, এমপি, আমলা এবং ব্যবসায়ীসহ অনেকে জড়িত মর্মে স্ট্যাটাসের মাধ্যমে তালিকা প্রকাশ করেছেন।

 

এই প্রতিবেদনে বাদীর নাম রয়েছে। আসামিরা পরষ্পর যোগসাজসে ওই সংবাদ প্রকাশ করে বাদীকে হেয়প্রতিপন্ন করে স্বার্থ হাসিলের অপচেষ্টা করেছেন বলে অভিযোগ করা হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2014
Design & Developed BY ithostseba.com